Breaking

Sunday, 8 December 2019

রবি ১০ মিনিট স্কুল কি? এই ডিজিটাল স্কুলের আদ্যোপান্ত জানুন

১০ মিনিট স্কুল

রবি ১০ মিনিট স্কুল এর নাম শুনে থাকবেন অনেকেই। এটি বাংলাদেশের একটি ব্যাতিক্রমী শিক্ষা বিষয়ক প্রতিষ্ঠান। ব্যাতিক্রমী বলতে আসলে এটি একটি ডিজিটাল শিক্ষা সংগঠন। ইতোমধ্যেই শিক্ষার্থীদের মাঝে এটি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। তাদের শিক্ষার্থীর সংখ্যা সারাদেশে ১৩ লাখেরও অধিক।

    ১০ মিনিট স্কুল কি?




    ১০ মিনিট স্কুল হলো বাংলাদেশের একটি ডিজিটাল শিক্ষা সংগঠন। এটি প্রতিষ্ঠা করেন শিক্ষা উদ্যোক্তা আয়মান সাদিক। ২০১৫ সালে মোবাইল অপারেটর রবির সহায়তায় এটি প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। উদ্দেশ্য ছিলো ডিজিটাল উপায়ে মানুষকে সহজেই শিক্ষিত করে তোলা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইবিএ এর ছাত্র থাকাকালীন সময়েই এটি প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। এই প্রতিষ্ঠানের নীতিবাক্য হলো,
    "আমরা আগামীর স্বপ্নে বিভোর এক ঝাঁক তরুণ"

    কার্যক্রম

    এই ডিজিটাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি মূলত ফেসবুক, ইউটিউব এবং নিজেদের ওয়েবসাইটে ভিডিও লেসনের মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। বিভিন্ন বিষয়ের উপর তারা বাংলায় ছোট ছোট ভি‌ডিও টিউটোরিয়াল প্রকাশ করে।
    পড়ুন এনটিআরসিএ এর নতুন খবর ২০২০

    কি শেখানো হয় রবি ১০ মিনিট স্কুলে?




    প্রথম শ্রেণী থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত সকল একাডেমিক বিষয়েই শেখানো হয়। একাডেমিক বিষয়ের বাইরে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি, চাকরির প্রস্তুতি, বিসিএস প্রস্তুতি, জীবন দক্ষতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত বিভিন্ন টিউটোরিয়াল রয়েছে তাদের। ইউটিউবে লাইভ ক্লাসের আয়োজনও করে তারা। এমনকি IELS সংক্রান্ত এবং ইংরেজি শিক্ষা সংক্রান্ত অনেক তথ্যবহুল টিউটোরিয়ালও রয়েছে তাদের। তাদের শিক্ষকরা অনেক মেধাবী এবং খুব মজা করে ক্লাস করানো হয়। ফলে ক্লাস করতে একটুও বিরক্তি লাগবেনা আপনার।

    জেএসসি প্রস্তুতি, এসএসসি প্রস্তুতি এবং এইচএসসি প্রস্তুতির জন্য তারা বিশেষ ক্লাস এবং কুইজের আয়োজন করে থাকে। কাজেই শিশু থেকে শুরু করে সব ধরনের শিক্ষার্থীদের জন্যই এটি একটি আদর্শ শিক্ষা বিষয়ক প্ল্যাটফর্ম।
    পড়ুন প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ ২০২০

    পুরস্কার

    এমন চমৎকার একটি উদ্যোগের জন্য কোনো পুরস্কার পাবেনা তাও কি হয়? ইতোমধ্যেই বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে ১০ মিনিট স্কুল। এর মধ্যে রয়েছে ব্র্যাক মানথান ডিজিটাল উদ্ভাবন পুরস্কার, সুইস দূতাবাস পুরস্কার, এমডব্লিওসি পুরস্কার, গ্লোমো পুরস্কার ইত্যাদি।
    আয়মান সাদিক

    ফী




    ফী নিয়ে ঘাবড়ানোর কিছুই নেই। আমরা সবাই যেমন সবকিছু ফ্রী পেতেই আগ্রহী আমাদের সবার জন্যই এই মহৎ শিক্ষা কার্যক্রম ফ্রীই করে দেয়া হয়েছে। শিক্ষার আলোয় আলোকিত হয়ে উঠুক সবাই। আমরা সবাই এই মহৎ উদ্যোগের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি। পড়ুন পুলিশ নিয়োগ ২০২০

    কিভাবে ক্লাস শুরু করবেন ১০ মিনিট স্কুলে?

    যদি আপনিও অংশগ্রহণ করতে চান ১০ মিনিট স্কুলে তাহলে দেরি না করে ভিজিট করুন তাদের ডিজিটাল ক্লাস রুম। তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইট থেকে আপনার প্রয়োজনীয় ক্লাসটিতে অংশ নিতে পারেন অথবা তাদের মোবাইল এপ ব্যবহার করেও শিখতে পারেন। এছাড়াও রয়েছে তাদের ইউটিউব চ্যানেল, ফেসবুক পেজ এবং ১০ মিনিট স্কুল ব্লগ। সকল কিছুর ঠিকানা তাদের ওয়েবসাইটেই পেয়ে যাবেন।

    সীমাবদ্ধতা




    এতক্ষণ তাদের ভালো দিকগুলো বর্ণনা করলাম! এবার কিছু সীমাবদ্ধতার কথা না বললে আলোচনা অসম্পূর্ণ থেকে যায়। তাদের সব বিষয়ের ক্লাস এখনো সম্পূর্ণ নয়। কিছু কিছু বিষয়ে শুধু ধারণা দেয়া আছে, ক্লাসগুলি পরিপূর্ণ করা হয়নি।

    এই ক্লাসগুলি একজন শিক্ষার্থীর পড়াশোনায় সহায়তা করতে পারে মাত্র। তবে শুধু এই ক্লাসগুলির উপর নির্ভরশীল হওয়া যাবেনা। এটি পাঠ্যপুস্তক বা প্রচলিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিকল্প নয়।

    এবার আপনার পালা। রবি টেন মিনিট স্কুল নিয়ে আপনার কোনো মতামত বা প্রশ্ন থাকলে তা এখানে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। এরকম আরো নিত্য নতুন বিষয়ে জানতে সমকাল ব্লগের সাথেই থাকুন।

    No comments:

    Post a comment