Breaking

Sunday, 19 January 2020

২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ, সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০ ডাউনলোড করুন

এসএসসি রুটিন

২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন, দাখিল রুটিন ২০২০ প্রকাশিত হয়েছে। সকল বোর্ডের এসএসসি রুটিন ২০২০ ডাউনলোড করুন। প্রিয় এসএসসি পরীক্ষার্থী বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছো। তোমরা নিশ্চয়ই ইতোমধ্যে জেনে গেছো প্রকাশ হয়েছে ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন। পরীক্ষা শুরু ১লা ফেব্রুয়ারি ২০২০ থেকে এবং শেষ হবে ২২শে ফেব্রুয়ারি ২০২০! আরো পড়ুন এইচএসসি রেজাল্ট ২০২০

সবাই নিশ্চয়ই এসএসসি ২০২০ পরীক্ষার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত। চূড়ান্ত প্রস্তুতির জন্য সবাই পড়াশোনায় ব্যাস্ত সময় পার করছো। এবার বেশ আগেভাগেই প্রকাশিত হয়েছে এসএসসি রুটিন ২০২০। সবাই এস এস সি রুটিন ২০২০ হাতে পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছো।সকল বোর্ডের ssc পরীক্ষার রুটিন 2020 একই। ২০১৭ সাল  পর্যন্ত ভিন্ন ভিন্ন বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ভিন্ন ভিন্ন হতো। ২০১৮ সাল থেকে সকল বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন অভিন্ন হচ্ছে। ফলে সকল বোর্ডের জন্য একটিই রুটিন। ssc রুটিন ২০২০ প্রকাশিত হওয়ার সাথে সাথেই তা আমাদের সমকাল ব্লগে প্রকাশ করা হলো।

    ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন

    যারা অনলাইনে এসএসসি পরীক্ষা ২০২০ রুটিন ডাউনলোড করতে চাও তারা আমাদের ব্লগ থেকেই তা করতে পারো। এখানে একইসাথে দাখিল পরীক্ষার রুটিন ২০২০ ও প্রকাশ করা হলো।
    


    তোমরা জেনে আরো খুশি হবে যে আমরা সমকাল ব্লগে তোমাদের সুবিধার জন্য অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা প্রণীত এসএসসি সাজেশন ২০২০ প্রকাশ করতে যাচ্ছি। এছাড়াও তোমরা সবাই জানো রুটিন প্রকাশ হওয়ার পরও পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে বিভিন্ন কারণে পরীক্ষার পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচি অনেকসময় পরিবর্তন হয়ে যায়! সে ধরণের কিছু ঘটলেও আমরা তা যথাসময়ে জানিয়ে দেবো। কাজেই  2020 সালের ssc পরীক্ষার রুটিন এবং সাজেশন পেতে হলে নিয়মিত পড়তে হবে আমাদের সমকাল ব্লগ। আরো পড়ুন এসএসসি রেজাল্ট ২০২০

    এস এস সি রুটিন ২০২০ ডাউনলোড pdf

    যারা এসএসসি পরীক্ষার রুটিন পিডিএফ আকারে ডাউনলোড করতে চাও তারা এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারো। সরাসরি শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড লিংক দেয়া হলো ।

    এসএসসি রুটিন 2020 এতো আগে প্রকাশিত হলো কিভাবে?

    গত ১৯শে জুন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সাব কমিটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে এস এস সি পরীক্ষার রুটিন 2020 এর অনুমোদনের জন্য প্রস্তাব পেশ করে। মন্ত্রণালয় প্রস্তাব অনুমোদন করার পর ৩রা জুলাই বুধবার মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করে এবং শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসি পরীক্ষার রুটিন ২০২০ প্রকাশ করা হয়।



    এস এস সি রুটিন ২০২০ ছবি আকারে

    তত্ত্বীয় পরীক্ষার রুটিন
    ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন

    ব্যবহারিক পরীক্ষার রুটিন
    এসএসসি রুটিন ২০২০

    সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০

    ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের তারিখ ৩০/০১/২০২০ থেকে পিছিয়ে ০১/০২/২০২০ করার কারণে এসএসসি পরীক্ষার রুটিন পরিবর্তন করেছে শিক্ষা বোর্ড। নিচে সংশোধিত এসএসসি পরীক্ষার রুটিন ২০২০ দেয়া হলো।
    সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০
    সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০

    দাখিল রুটিন ২০২০ এবং ভোকেশনাল রুটিন ২০২০

    



    আমরা জানি এসএসসি পরীক্ষা দেশের মোট আটটি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত হয়। বোর্ডগুলো হলো : ঢাকা , রাজশাহী, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, দিনাজপুর এবং সিলেট।

    এসএসসি পরীক্ষার মতো মাদ্রাসার দাখিল এবং কারিগরির ভোকেশনালও সমমানের পরীক্ষা। দাখিল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে এবং ভোকেশনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে।

    ২০২০ সালের দাখিল পরীক্ষার রুটিন

    ২০২০ সালের ভোকেশনাল পরীক্ষার রুটিন

    ২০২০ সালের এসএসসি ভোকেশনাল ও দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষার রুটিন প্রকাশিত হয়েছে। নিম্নে তত্ত্বীয় ও ব্যাবহারিক পরীক্ষার রুটিন দেয়া হলো।
    দাখিল ভোকেশনাল রুটিন ২০২০
    এসএসসি ভোকেশনাল রুটিন ২০২০

    এসএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র

    এসএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র পরীক্ষার্থীদের নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে সংগ্রহ করতে হবে। ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র বিতরণ শুরু হবে ফরম ফিলাপ শেষে।পরীক্ষার্থীদের যত দ্রুত সম্ভব পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ করা উচিৎ। প্রবেশপত্রে কোনো ভুল ত্রুটি থাকলে তা সংশোধনের জন্য অল্প কয়েকদিন সময় দেয়া হয়। তবে ভুলত্রুটি থাকলেও এতে শিক্ষার্থীদের ঘাবড়ানোর প্রয়োজন নেই কারণ ভুল ত্রুটির জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকেই দায়ী করা হবে এবং ভুল ত্রুটি থাকলে তা সংশোধনের আবেদন করতে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকেই নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

    বিশেষ নির্দেশনাবলী

    1. পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট পূর্বে অবশ্যই পরীক্ষার্থীদেরকে পরীক্ষা কক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে।
    2. প্রশ্নপত্রে উল্লেখিত সময় অনুযায়ী পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে।
    3. প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে সৃজনশীল / রচনামূলক (তত্ত্বীয়)  পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এবং উভয় পরীক্ষার মধ্যে কোনো বিরতি থাকবে না।
    4. পরীক্ষার্থীগণ তাদের প্রবেশপত্র নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান প্রধানের নিকট হতে পরীক্ষা আরম্ভের কমপক্ষে তিন দিন পূর্বে সংগ্রহ করবে।
    5. ২০১৬-১৭, ২০১৭-১৮ শিক্ষা বর্ষের পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে শারিরীক শিক্ষা, স্বাস্থ্যবিজ্ঞান ও খেলাধুলা এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়সমূহ এনসিটিবি এর নির্দেশনা অনুসারে ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র ব্যাবহারিক পরীক্ষার নম্বরের সাথে ধারাবাহিক মূল্যায়নে প্রাপ্ত নম্বর বোর্ডের ওয়েবসাইটে অনলাইনে প্রেরণ করবে।
    6. পরীক্ষার্থীগণ তাদের নিজ নিজ উত্তরপত্রের OMR ফরমে তার পরীক্ষার রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, বিষয় কোড ইত্যাদি যথাযথভাবে লিখে বৃত্ত ভরাট করবে। কোনো অবস্থাতেই উত্তরপত্র ভাঁজ করা যাবেনা।
    7. প্রত্যেক পরীক্ষার্থী কেবলমাত্র নিবন্ধনপত্রে বর্ণিত বিষয়/ বিষয়সমূহের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। কোনো অবস্থাতেই ভিন্ন বিষয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না।
    8. কোনো পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা ( সৃজনশীল / রচনামূলক (তত্ত্বীয়) বহুনির্বাচনী ও ব্যাবহারিক)  নিজ বিদ্যালয় /প্রতিষ্ঠানে অনুষ্ঠিত হবেনা। পরীক্ষার্থী স্থানান্তরের মাধ্যমে আসন বিন্যাস করতে হবে।
    9. পরীক্ষার্থীগণ পরীক্ষায় সাধারণ, সায়েন্টিফিক ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে পারবে। কেন্দ্র সচিব ছাড়া কোনো ব্যাক্তি / পরীক্ষার্থী পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন আনতে এবং ব্যবহার করতে পারবে না।
    10. সৃজনশীল / রচনামূলক ( তত্তীয়) , বহুনির্বাচনী ও ব্যাবহারিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর উপস্থিতির জন্য একই উপস্থিতি পত্র ব্যবহার করতে হবে।
    11. ব্যাবহারিক পরীক্ষা স্ব স্ব কেন্দ্র /ভেন্যুতে অনু্ষ্ঠীত হবে।
    12. পরীক্ষার ফল প্রকাশের সাত দিনের মধ্যে পুনঃনীরিক্ষার জন্য অনলাইনে এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।


    এসএসসি প্রশ্ন ফাঁস

    বাংলাদেশে পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে যথেষ্ট হইচই হয়। এটি বর্তমানে বাংলাদেশে ব্যাপকভাবে আলোচিত একটি সমস্যা। তবে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মণি বলেছেন এর ৮০ ভাগই গুজব। তিনি এসব গুজব থেকে সচেতন থাকার জন্য শিক্ষার্থী,অভিভাবকদের অনুরোধ করেছেন। তবে এসবের মাঝে যে ২০ ভাগ সত্যতা রয়েছে সেটিও রোধ করার জন্য পদক্ষেপ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। প্রশ্ন পত্র ফাঁস রোধে ২৭শে জানুয়ারি থেকে ২৭শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো বিগত এসএসসি পরীক্ষার সময়।এছাড়া নির্দেশ রয়েছে কেন্দ্র সচিব ছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্রের কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না।এমনকি কেন্দ্র সচিবের ফোনটিও হতে হবে সাধারণ মানের অর্থাৎ যা দিয়ে শুধু কথা বলা যাবে। প্রশ্ন পত্র পাঠানো হবে এলুমিনিয়াম ফয়েল প্যাকে। পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার ৩০ মিনিট পূর্বে কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে।

    5 comments:

    1. বাউবি ২০১৯ সালের এসএসসি রুটিন চাই

      ReplyDelete
      Replies
      1. ধন্যবাদ।সমকাল ব্লগের সাথেই থাকুন।

        Delete
    2. Replies
      1. সমকাল ব্লগ এর সাথে থাকার জন্য আপনাকেও ধন্যবাদ।

        Delete
    3. This comment has been removed by a blog administrator.

      ReplyDelete