Breaking

Sunday, 27 September 2020

গুগল এডসেন্স কি? গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায়

গুগল এডসেন্স কি? গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায়

যারা টুক টাক ব্লগিং করেন বা করার চেষ্টা করেছেন তাদের সবাই গুগল এডসেন্সের কথা শুনেছেন।ইউটিউব চ্যানেল, ব্লগ, অ্যাপস  বা একটি নিজস্ব ওয়েবসাইট থাকলে AdSense থেকে আয় করা যায় তাও জানেন। অনেকেই, যাদের ইউটিউব চ্যানেল বা ব্লগ আছে তারা নিজেও একটা এডসেন্স একাউন্ট পাওয়ার আশা করেন।

আমি এখানে ইউটিউব চ্যানেলে এডসেন্স সম্পর্কে আলোচনা করবোনা, বলবো ব্লগে গুগল এডসেন্স সম্পর্কে। নেটে গুগল এডসেন্স লিখে সার্চ করলেই দেখতে পাবেন হরেক রকমের তথ্য! কেউবা বলেন এটি পাওয়াই প্রায় অসম্ভব ব্যাপার আবার কেউবা বলেন পেলেও রক্ষা করা কঠিন আবার অনেকেই পরামর্শ দেন এর বিকল্প খোঁজার! আবার অনেকেই হতাশ হয়ে Google AdSense এর নাম দিয়েছেন সোনার হরিণ!আমাদের দেশে সরকারি চাকুরীকে যেমন সোনার হরিণ বলা হয় আরকি!


সত্যি কথা বলতে কি আমার নিজেরও প্রথমে এরকমই ধারণা ছিলো নেট থেকে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে। আমি নিজেও অনেক বিকল্প খুঁজেছি! এমনকি আমাজনের CPM এড পর্যন্ত ব্যাবহার করেছি যদিও এটি পাওয়াও গুগল এডসেন্স পাওয়ার চেয়ে কোনো অংশে কম নয়! আমাজন এফিলিয়েট মারকেটিং ভিন্ন বিষয় তাই এটি নিয়ে এখানে আলোচনা করবোনা।

এছাড়াও আরো কতো যে এড নেটওয়ার্কে চেষ্টা করেছি তার সবগুলোর নামই স্মরণ নেই! অনেক ভালো মন্দ Ad Network এ চেষ্টা করেছি! শেষ পর্যন্ত দেখা যায় একেকটার একেক রকমের কঠিন শর্ত! বিভিন্ন ফোরামেও এদের রিভিউ পড়েছি! শেষ পর্যন্ত ঘুরে ফিরে সবাই স্বীকার করে Google AdSense ই সবদিক থেকে সুবিধাজনক এবং ভালো ও বিশ্বস্ত!

এখন অনেকেই হয়তো বলবেন ভালো সে তো আমরাও শুনেছি । ভালো বলেই তো ওয়েবসাইটের জন্য সবার আগে গুগল এডসেন্সই চাই! না পেয়েই তো এদিক সেদিক চেষ্টা করি। তাই পারলে নতুন কিছু শোনান যাতে সহজে গুগল এডসেন্স একাউন্ট পাওয়া যায়। এসব শুনতে শুনতে ক্লান্ত এবং হতাশ!

উত্তরঃ জ্বী ভাই আপনার কথা মানছি। লেখাটি সম্পূর্ণ পড়লে অবশ্যই নতুন কিছু পাবেন যা সচরাচর কেউ বলেনা। তবে আগেই বলে নিই যদিও আমার এই ব্লগে আপনারা নিজেই গুগল এডসেন্স দেখতে পাচ্ছেন তবুও আমি কোনো বিশেষজ্ঞ নই বরং নিজেই এখনো শিখছি। তবে এটুকু বলা যায় গুগল এডসেন্স সফলভাবে চালাতে হলে এ বিষয়ে গুগলের সকল নীতিমালা সঠিকভাবে অনুসরন করতে হবে। কাজেই বিভ্রান্ত হতে না চাইলে নির্ভরযোগ্য উৎস থেকেই সঠিক তথ্য জানতে হবে।

তাহলে Google AdSense সম্পর্কে সঠিক তথ্য কোথায় পাওয়া যাবে?



উত্তরঃ
আসলে গুগল এডসেন্স হেল্প বা সাপোর্ট সেন্টারে এডসেন্স সম্পর্কে সব তথ্যই আছে। সরাসরি সেখান থেকে জানলে সম্পূর্ণ সঠিক তথ্যটি পাওয়া যায়। তবে সবগুলো লেখা পড়তে অনেক সময়ের প্রয়োজন। আর সব প্রশ্নের সরাসরি উত্তর অবশ্য পাওয়া যায়না। এমন অনেক প্রশ্নই মনে আসে যার উত্তর সরাসরি সেখানে নেই। যেসব প্রশ্নের স্পষ্ট উত্তর নেই সেসব বিষয়ে আপনি AdSense help ফোরামে যখন খুশি, যতো খুশি প্রশ্ন করতে পারেন। খুব দ্রুত কোনো এক্সপার্ট এসে আপনার প্রশ্নের উত্তর দেবে।

আমাদের ব্লগে কোনো অনুমাননির্ভর তথ্য দেয়া হয়না বরং আমাদের ব্লগে এডসেন্স নিয়ে বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে পাঠকদের জন্য উপকারী বিষয়গুলো শেয়ার করা হয়েছে।

এখন আসুন কিছু প্রশ্নোত্তরের আলোকে Google AdSense সম্পর্কে জানা যাক।

গুগল এডসেন্স কি? গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায়


প্রশ্ন: গুগল এডসেন্স কি? কিভাবে এডসেন্স থেকে আয় করা যায়? 
 

উত্তর:
গুগল এডসেন্স হলো গুগলের এড নেটওয়ার্ক প্রোগ্রাম। Google Ads যার পূর্বনাম Google Adwords এর মাধ্যমে গুগল বিভিন্ন কোম্পানির কাছ থেকে যেসব বিজ্ঞাপন ( Display Ads) পায় তা AdSense এর মাধ্যমে পাবলিশারদের দিয়ে থাকে। Publisher গণ তাদের ওয়েবসাইটে উক্ত বিজ্ঞাপণগুলো প্রচার করলে এ থেকে গুগলের যা আয় হয় তার ৬৮% তারা পাবলিশারদের দিয়ে থাকে। ওয়েবসাইট ছাড়াও বিজ্ঞাপনগুলী ইউটিউব চ্যানেল এবং মোবাইল এপসেও প্রদর্শন করা যায় তবে এজন্য ভিন্ন ভিন্ন শর্ত এবং নিয়মাবলী প্রযোজ্য। উল্লেখ্য এটি গুগলের আয়ের সবচেয়ে বড় উৎস।


প্রশ্ন: ব্লগার ব্লগে বাংলা কনটেন্টে কি AdSense পাওয়া যায়?

উত্তর: জ্বী যায়। আমি নিজেই তার জলজ্যান্ত প্রমাণ! আর এই লেখার মূল আলোচনা এ বিষয়টি কেন্দ্র করেই। ব্লগার ব্লগে অর্থাৎ blogspot subdomain ব্লগেও খুব সহজেই এডসেন্স পাওয়া যায়। একে বলে হোস্টেড এডসেন্স (Hosted AdSense)। এমন বাধ্যবাধকতা নেই যে আগে কোনো টপ লেভেল ডোমেইন(.com .net .org .info) নিয়েই শুরু করতে হবে অথবা ডোমেইন হোস্টিং কিনে ওয়ার্ডপ্রেসেই  শুরু করতে হবে।

আমি প্রথমে এই ব্লগেই এডসেন্সের জন্য এপ্লিকেশন করেছি আর এপ্রুভও হয়েছে। সমকাল ব্লগ তখন ছিলো Blogger subdomain এ। পরবর্তীতে Custom domain সেট করা হয় এবং AdSense Account টি হোস্টেড এডসেন্স (Hosted AdSense) থেকে আপগ্রেড করে নন-হোস্টেড এডসেন্স (Non Hosted AdSense) করা হয়।

আর বাংলা লেখায় গুগল এড দেয় এটা এখন পুরনো খবর। গত ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৭ থেকে গুগল এডসেন্স বাংলা ভাষার ওয়েবসাইটে এড দেয়া শুরু করেছে। আরও পড়ুন  ব্লগার ব্লগে এডসেন্স বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের সহজ পদ্ধতি।

প্রশ্ন: কিভাবে এডসেন্স একাউন্ট পাওয়ার জন্য এপ্লিকেশন করতে হয়?


উত্তর:
গুগল এডসেন্স একাউন্টের জন্য আবেদন করার আগে অবশ্যই আগে যাচাই করে নিতে হবে আপনার ওয়েবসাইটটি এডসেন্স পাওয়ার জন্য Eligible কিনা। যদি নিশ্চিত হন আপনার ওয়েবসাইটি গুগল এডসেন্সের Program policy এবং Terms and Conditions সম্পূূূর্ণরূপে অনুসরণ করে প্রস্তুত করা হয়েছে তবেই নির্দিষ্ট Form টি পূরন করে sign up করুন।

তবে যদি ব্লগার ব্লগে blogspot subdomain থেকে হোস্টেড (Hosted) একাউন্টের জন্য আবেদন করতে চান তাহলে এই ফরমের মাধ্যমে আবেদন করা যাবেনা। সেক্ষেত্রে আপনার ব্লগার ব্লগ থেকেই আবেদন করতে হবে।

প্রশ্ন: গুগল এডসেন্স  এর  জন্য এপ্লিকেশন করার আগে ব্লগের বয়স কতোদিন হতে হবে? 

উত্তর: এইটা নিয়েই অনেকে বিভ্রান্তি ছড়ায়! কেউ বলে ব্লগের বয়স কমপক্ষে ছয়মাস হতে হবে আবার কেউ বলে ছয়মাস হওয়ার প্রয়োজন নেই! ভালো লেখা হলে তিন চার মাসেই এডসেন্স পাওয়া যায়! তাহলে কার কথা বিশ্বাস করবেন? এক্ষেত্রে আমি বলবো আমার নিজের অভিজ্ঞতার কথা! আমি প্রথমে আমার এই ব্লগের বয়স ছয়মাস পূর্ণ হওয়ার আগেই এডসেন্স এপ্লিকেশন করেছিলাম! গুগল এপ্লিকেশন রিজেক্ট করে ইমেইল করেছিলো। সেখানে এপ্লিকেশন রিজেক্ট হওয়ার যে কারণ উল্লেখ ছিলো তার একটিতে স্পষ্ট বলা ছিলো যে ব্লগের বয়স কমপক্ষে ছয়মাস হতে হবে এডসেন্স পেতে হলে। দেখুন গুগল নিজেই কি বলে এ বিষয়ে:

Has your site been active for at least six months?

In some locations, we may require your site to have been active for at least six months before it will be considered. We've taken this step to ensure the quality of our advertising network and protect the interests of our advertisers and existing publishers.

প্রশ্ন: গুগল এডসেন্স  একাউন্ট এর জন্য এপ্লিকেশন করার আগে ব্লগে মোট কতটি পোস্ট থাকতে হবে? 

উত্তর: এটি নিয়েও চরম বিভ্রান্তি দেখতে পাবেন গুগলে সার্চ করলে! কেউ বলে ২৫/৩০ কেউ বলে ৫০+ আবার কেউবা বলে ১০০+! এক্ষেত্রেও আমি শুধু নিজের অভিজ্ঞতাই বলবো। আমার এই ব্লগটি এপ্রুভ হওয়ার সময় পোস্ট ছিলো মাত্র ১৮ টি! অবশ্য এর চেয়েও কম পোস্টে কেউ পেয়ে থাকলে আমার জানা নেই। কাজেই নতুনদের ঘাবড়ানোর কারণ নেই! ২০+ পোস্ট লেখার পরই এপ্লাই করতে থাকুন। এপ্রুভ না হলে বারবার এপ্লাই করলেও কোনো সমস্যা নেই। তবে পোস্টগুলো যেনো অবশ্যই ইউনিক হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে অর্থাৎ কপি পেষ্ট লেখা চলবেনা।

প্রশ্ন: লেখার আকার কমপক্ষে কতো শব্দের হতে হবে? 

উত্তর: কেউ বলে ৫০০ আবার কেউ বলে ১০০০ শব্দের হতে হবে! আমার ১৮ টি পোস্টের বেশ কয়েকটি লেখাই ছিলো মাত্র ৪/৫ লাইনের! তারপরও এপ্রুভ হয়েছে। তবে লেখার মান যত ভালো হবে , লেখা যতো তথ্যবহুল হবে, লেখার আকার যতো বড় হবে ততো তাড়াতাড়ি এপ্রুভ হবে। কিন্তু লেখার আকার বড় করতে গিয়ে অর্থহীন বাক্য দিয়ে Content ভরিয়ে ফেলা ঠিক হবেনা।

প্রশ্ন: লেখার মান কেমন হতে হবে? কপি পেস্ট করা যাবে?

উত্তর: কপি পেস্ট যে করা যাবেনা সেটা গুগল স্পস্টই বলে দিয়েছে! আমিও কপি পেস্ট করিনি। যা লেখা হয়েছে সব নিজ থেকেই লেখা। তবে তারমানে এই নয় যে নেট থেকে কোনো তথ্য নেয়া যাবেনা। প্রয়োজনীয় তথ্য নেট থেকে সংগ্রহ করে নিজের ভাষায় লেখা যাবে।

প্রশ্ন: শুধু একটি নির্দিষ্ট বিষয় নিয়েই লিখতে হবে? নাকি একাধিক বিষয় নিয়েও ব্লগে লেখা যাবে?

উত্তর: আমার ব্লগে দেখতেই পাচ্ছেন একাধিক বিষয়ে লেখা হয়েছে। অবশ্যই একাধিক টপিকস এবং Keywords এর উপরে লেখা যাবে। তবে কিছু বিষয় আছে যেগুলো কোনভাবেই ওয়েবসাইটে লেখা যাবেনা, লিখলে AdSense এপ্রুুভ হবেনা। এগুলো prohibited content।

প্রশ্ন: কোন টেমপ্লেটটি ব্যাবহার করলে ভালো হবে?

উত্তর: এখন আমার ব্লগে যে Template টি দেখতে পাচ্ছেন এটি এডসেন্স পাওয়ার অনেক পরে নিয়েছি। শুরুতে এপ্লিকেশন এপ্রুভ হওয়ার সময় ছিলো ব্লগারের Simple template। কাজেই নিজের পছন্দমত যেকোনো টেমপ্লেট ব্যবহার করা যাবে। এতে কোনো বিধিনিষেধ নেই তবে ওয়েবসাইটের Navigation যেনো User-friendly হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

প্রশ্ন: ব্লগে Privacy policy, Contact, About ইত্যাদি দেয়া কি জরুরি?

উত্তর : গুগল এগুলো স্পষ্টভাবেই ব্যাবহার করতে বলেছে। তবে এপ্লিকেশন করার সময় আমার ব্লগে এগুলো ছিলোনা। এপ্রুভ হওয়ার পরে এসব রেখেছি। তবে ওয়েবসাইটে বিশেষ করে Privacy policy অবশ্যই রাখতে হবে। এ বিষয়ে Google বলেছে :

Privacy

You must disclose clearly any data collection, sharing, and usage that takes place on any site, app, or other property as a consequence of your use of any Google advertising service. To comply with this disclosure obligation with respect to Google’s use of data, you have the option to display a prominent link to How Google uses data when you use our partners’ sites or apps

এডসেন্স এড্রেস ভেরিফিকেশন: মনে রাখতে হবে এড্রেস ভেরিফিকেশন বাধ্যতামূলক। এডসেন্স একাউন্টে দেয়া এড্রেস ভেরিফিকেশন করার আগে পেমেন্টের জন্য ব্যাংক একাউন্ট নম্বর এড করা যায়না। এডসেন্স একাউন্টে প্রথম ১০ ডলার জমা হওয়ার সাথে সাথেই এডসেন্স পাবলিশারের এড্রেস ভেরিফিকেশনের জন্য একটি পিন নম্বর জেনারেট করা হয়। এরপর পিন নম্বরটি বাই পোস্টে পাবলিশারের দেয়া ঠিকানায় পাঠিয়ে দেয় গুগল। চিঠি পাওয়ার পর নির্দিষ্ট নিয়মে পিন নম্বরটি বসিয়ে নিজের ঠিকানা ভেরিফাই করতে হয় এডসেন্স পাবলিশারকে। প্রথমবার কোনো কারণে চিঠি না পেলেও ভয়ের কিছু নেই। সর্বোচ্চ তিনবার চিঠি পাঠানো হয়। এরপরও না পৌঁছালে তবুও ঘাবড়ানোর কিছু নেই।সেক্ষেত্রে নিজের ভোটার আইডি কার্ডের স্ক্যান কপি অথবা ব্যাংক স্টেটমেন্টের কপি দিয়েও এড্রেস ভেরিফিকেশন করা যায়।

শেষ করার আগে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ টিপস:গুগল এডসেন্স পেতে চাইলে ব্লগে কখনও ভায়োলেন্স প্রকাশ পায় এমন কোনো ছবি রাখা যাবেনা এবং কোনো ড্রাগস নিয়ে আলোচনা করা যাবেনা। এমনকি এমন কোনো মুভি পিকচারও রাখা যাবেনা যেখানে অস্ত্র বা বোমা বিস্ফোরণের দৃশ্য রয়েছে! আমার ব্লগে জেমস বন্ড মুভির একটি দৃশ্যের ছবি ছিলো যেখানে নায়ক অস্ত্র হাতে দৌড়াচ্ছে। এপ্রুভ করার আগে এজন্য গুগল আমাকে সতর্ক করে ইমেইল করেছিলো। এরপর ছবিটি ডিলিট করার পরেই  AdSense এপ্রুভ করেছিলো গুগল! 


এখানে স্বল্প পরিসরে কমন কিছু প্রশ্নের উত্তর দিলাম। প্রশ্নগুলো আমার নিজের মনেও উদয় হয়েছিলো।প্রশ্নোত্তরগুলোর উত্তর ভালোভাবে ফলো করলে খুব তাড়াতাড়ি এবং সহজেই পাওয়া যাবে স্বপ্নের Google AdSense। গুগল এডসেন্স তাদের Program policy এবং Terms and conditions এর বিষয়ে খুবই সিরিয়াস। কাজেই এডসেন্স একাউন্ট পাওয়ার জন্য এবং তা টিকিয়ে রাখার জন্য এগুলো সঠিকভাবে অনুসরণ করে চলার কোনো বিকল্প নেই।

কাদের জন্য এডসেন্স উপযুক্ত নয়?

  • যারা ওয়েবসাইট নিয়ে সঠিক পরিকল্পনা করার আগেই দ্রুত টাকা রোজগার করতে চায়।
  • যাদের ধৈর্য্যের অভাব আছে ।
  • লেখালেখির প্রতি আগ্রহ কম। অন্যের লেখা কপি করার প্রবনতা আছে।
  • ওয়েবসাইট শুধু ফেসবুক ভিজিটরের উপর নির্ভরশীল।
  • SEO এর মাধ্যমে Organic visitor আনার পরিকল্পনা নেই।
  • মনে করে একটি AdSense account পেয়ে গেলেই হাজার হাজার ডলার আসতে থাকবে।
  • প্রচুর পড়াশোনা করার আগ্রহ ও ধৈর্য্য নেই।

একেকজনের একেকরকম প্রশ্ন থাকবেই। প্রশ্নের আসলে কোনো শেষ নেই।এডসেন্স নিয়ে কারো কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করবেন। উত্তর জানা থাকলে অল্প সময়ের মধ্যেই তা দিয়ে দেয়া হবে। আরো নতুন নতুন পোস্ট পেতে নিয়মিত ব্লগে চোখ রাখুন।

34 comments:

  1. খুবই হেল্পফুল লেখা। অনেক কিছু জানলাম, অনেক কনফিউশন দূর হলো। শুধু ছোট্ট একটা প্রশ্ন আছে ভাই, আমার ব্লগারের সাইটে যদি কেনা ডোমেইন নেম বসিয়ে তারপর এ্যাডসেন্সের জন্য এ্যাপ্লাই করি, তবে এ্যাপলিকেশন কি ব্লগার ব্লগ থেকে করব, নাকি সাধারণ নিয়মে করব? - জানালে খুবই উপকৃত হতাম । অগ্রিম ধন্যবাদ।

    ReplyDelete
    Replies
    1. লেখাটি পড়ে উপকৃত হয়েছেন জেনে ভীষণ খুশি হলাম। আপনাদের সাথে নিয়েই সমকালের পথচলা।মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।
      অবশ্যই সাধারণ ফর্ম পূরন করে আবেদন করতে হবে কারণ আপনি সরাসরি Non hosted AdSense account এর জন্য আবেদন করবেন।
      আরো কোনো প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই করতে পারেন যে কোনো সময়।

      Delete
  2. ব্রাদার, কোন মেয়ের পিক দেয়া যাবে কি??
    অর্থাৎ কোন একটি টপিক নিয়ে যেমন; বিবাহ সম্পর্কে আর্টিকেল লিখে থামনেল মেয়ের পিক দিলে কোন সমস্যা হবে??

    ReplyDelete
    Replies
    1. কোনো সমস্যা নেই। তবে ন্যুড বা পর্নগ্রাফিক ছবি দিলে সমস্যা আছে।
      মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

      Delete
  3. আমার ব্লগ কিভাবে সিইও করবো
    প্লিজ হেল্প করুন

    ReplyDelete
    Replies
    1. আপনার ব্লগ এসইও করতে চান? ব্লগার ব্লগ কিভাবে সঠিকভাবে এসইও করতে হয় এ বিষয়ে পোস্ট লেখা শুরু হয়েছে আমাদের সমকাল ব্লগে। আপনি নিয়মিত পোস্টগুলো পড়তে থাকুন তাহলে নতুন নতুন আপডেট পাবেন।নেটে এসইও নিয়ে যত গাইডলাইন পাওয়া যায় তার অধিকাংশই অর্থহীন ছাড়া কিছুই নয়!ধৈর্য্য ধরে বুঝেশুনে কাজ করতে হবে।
      সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাবেন অবশ্যই সহযোগিতা করা হবে।
      ধন্যবাদ।

      Delete
    2. thanks brother

      Apnar personal fb account link ta dite parben ?

      Delete
    3. অবশ্যই।
      https://www.facebook.com/profile.php?id=100006681365785

      Delete
    4. ব্রাদার ফেইসবুক রিকোয়েস্ট এক্সেপ্ট করেন।।

      Delete
  4. বাংলা সাইটের জন্য এডসেন্স এর বিকল্প হিসেবে খুব ভালো কোনো এডমিডিয়া নেই, তবে অনেকগুলো আছে যারা ছোট সাইটগুলোর জন্য ভালো। যেমনঃ Adhitz, a-ads, ad chandrabindu ইত্যাদি।

    ReplyDelete
    Replies
    1. আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

      Delete
  5. এডসেন্স পাওয়ার জন্য প্রতিদিন কি পরিমাণ ট্রাফিক আসতে হবে ?

    ReplyDelete
    Replies
    1. গুগল এডসেন্স থেকে এ ধরনের ন্যুনতম কোনো ট্র্যাফিকের শর্ত দেয়া হয়নি!যদি কেউ বলে সেটা হবে মনগড়া তথ্য। কাজেই এটি নিয়ে অযথা টেনশন করার কোনো প্রয়োজন নেই!

      Delete
  6. ধন্যবাদ,অনেক কিছু জানতে পারলাম।ভাইয়া,আমার ব্লগে Earning Option টি দেখাচ্ছে না,,একটু আগেও দেখেছি,কিনন্তু এখন আর নাই।এর কারন কি হতে পারে।
    আর আমি কোন ভাবেই Adsense এর জন্য আবেদন করতে পারছিলাম না,,অনেক বার চেষ্টা করেছিলাম।

    ReplyDelete
    Replies
    1. মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ।আশা করি আপনার সমস্যার সমাধান হয়েছে!

      Delete
  7. ভাই আমার Google AdSense.
    একাউন্ট করার সময় যদি অন্য জনের Nid Card নাম্বার বা অন্য জনের ঢাঁচবাংলা একাউন্ট দেই তাহলে সেই একাউন্টে ডলার যাবে কী ।

    ReplyDelete
    Replies
    1. অন্যজনের একাউন্ট নম্বর দিলেও ডলার আসে শুনেছি।

      Delete
  8. বর্তমান সময়ে (2019 সালে) ইন্টারনেট থেকে আয় বলতে বা সহজ ইনকামের পথ বা উপায় হিসেবে গুগোল এডসেস্ন কে প্রথম এবং একটি নিরেপেক্ষ প্লাটফরম ধরা হয়।বর্তমানে Google Adsense এবং YouTube এর মাধ্যমে অনেকেই হাজার হাজার ডলার আয় করেছেন।
    বিস্তারিত জানতেঃ গুগোল এডসেস্ন একাউন্ট ক্রয়

    ReplyDelete
    Replies
    1. দয়া করি স্প্যামিং করা থেকে বিরত থাকুন!

      Delete
  9. ভাই এই টেমপ্লেট টির নাম কী.
    .?

    ReplyDelete
    Replies
    1. Way 2 Themes থেকে নেয়া টেমপ্লেট।

      Delete
  10. এই ওয়েব সাইট টি কি এডসেন্স পাওয়ার উপযোগী https://uzzalahmed.com/ বা আগের মত এখন নিয়ম আছে জানালে উপকৃত হতাম।

    ReplyDelete
    Replies
    1. সরাসরি গুগলে আবেদন করুন। উপযুক্ত না হলে সমস্যাগুলো কি তা গুগলই বলে দেবে।

      Delete
  11. Your writing is very informative. I've a blog. It's about 14 month old, but till date adsense approval is pending. Can you help me to know the reasons. And, what need to change in my blog so that approval can be approved. My blog is www.greenepots.com

    ReplyDelete
    Replies
    1. Apply again. If they reject they will explain the reasons.

      Delete
  12. আপনার ব্লগে কোন অ্যাড দেখতে পাচ্ছি না কেন

    ReplyDelete
    Replies
    1. সম্ভবত আপনার ব্রাউজারে এড ব্লোকার এনাবল করা আছে। ডিজেবল করলেই দেখতে পাবেন।

      Delete