Breaking

Friday, 24 January 2020

January 24, 2020

ডিগ্রি ৩য় বর্ষের রেজাল্ট ২০২০ প্রকাশ করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় | ডিগ্রি ফাইনাল রেজাল্ট

ডিগ্রি ৩য় বর্ষের রেজাল্ট

ডিগ্রি ৩য় বর্ষের রেজাল্ট ২০২০ প্রকাশিত হয়েছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্সের ৩য় বর্ষ তথা ডিগ্রি ফাইনাল রেজাল্ট ২০২০ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে এখানে। পরীক্ষার্থীরা যাতে সহজেই তাদের ডিগ্রি রেজাল্ট দেখতে পান এজন্য ডিগ্রি ৩য় বর্ষের ফলাফল ২০২০ দেখার সহজ পদ্ধতি আলোচনা করা হয়েছে। আরো পড়ুন ডিগ্রি ১ম বর্ষের রুটিন ২০২০

    ডিগ্রি ৩য় বর্ষের রেজাল্ট ২০২০




    জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রকাশিত তথ্যমতে ২০১৮ সালের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্সের ৩য় বর্ষের পরীক্ষার ফলাফল ১৫-০১-২০২০ তারিখে প্রকাশিত হয়। সারাদেশের ৭০৩ টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়েছিল এ পরীক্ষাটি এবং ১৮১৫ টি কলেজের মোট ২,১৯,৩৪১ জন পরীক্ষার্থী এতে অংশ নিয়েছিল। পাশের হার শতকরা ৬১.৯২%। দেখুন অনার্স ৪র্থ বর্ষের রুটিন ২০২০
    ডিগ্রি ফাইনাল রেজাল্ট ২০২০

    ডিগ্রি ফাইনাল রেজাল্ট ২০২০ দেখুন অনলাইনে





    • অনলাইনে পরীক্ষার ফলাফল দেখতে প্রথমে ভিজিট করুন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট।
    • বামপাশে ডিগ্রি এবং থার্ড ইয়ার সিলেক্ট করুন।
    • Individual Result সিলেক্ট করুন।
    • রেজিস্ট্রেশন নম্বর এবং পাশের বছর সঠিকভাবে পূরন করুন।
    • ক্যাপচা কোডটি সঠিকভাবে বসান।
    • এখন সর্বশেষ সার্চ রেজাল্ট এ ক্লিক করলেই দেখতে পাবেন আপনার ডিগ্রি ৩য় বর্ষের রেজাল্ট।
    জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

    ডিগ্রি ৩য় বর্ষের রেজাল্ট দেখুন এসএমএসএ




    এছাড়াও পরীক্ষার্থীরা সেল ফোনে এসএমএসের মাধ্যমেও তাদের পরীক্ষার ফলাফল দেখতে পারেন। এজন্য নিচের ফরম্যাট অনুযায়ী এসএমএস পাঠাতে হবে।

    SMS Format: NU [space] DEG [space] roll_no

    Example: NU DEG 8600765

    অতঃপর যে কোনো মোবাইল অপারেটর থেকে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএসটি পাঠিয়ে দিন। ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে সাম্প্রতিক পরীক্ষার ফলাফলটি জানিয়ে দেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। আরো পড়ুন ডিগ্রি ২য় বর্ষ পরীক্ষার রুটিন ২০২০

    ডিগ্রি ৩য় বর্ষের ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ




    প্রকাশিত ফলাফল সম্পর্কে কোনো সন্দেহ বা আপত্তি থাকলে তা ফলাফল প্রকাশের ১ মাসের মধ্যে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর লিখিত আবেদনের মাধ্যমে জানাতে হয়। এর পরে আর কোনো অভিযোগ গ্রহণযোগ্য হয়না। ডিগ্রি ৩য় বর্ষের ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন সংক্রান্ত নোটিশ দেখুন এবং প্রয়োজনে নিয়মানুযায়ী পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করুন।
    ডিগ্রি ৩য় বর্ষের ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ

    Thursday, 23 January 2020

    January 23, 2020

    ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন সার্কুলার ২০২০ প্রকাশ করেছে NTRCA | অনলাইন আবেদন শুরু

    শিক্ষক_নিবন্ধন_পরীক্ষা
    ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। শিক্ষক নিবন্ধন সার্কুলার ২০২০ প্রকাশ করছে NTRCA। ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন সার্কুলার ২০২০ এর আবেদন শুরু হয়েছে। অতঃপর ১৫ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি, প্রবেশপত্র ডাউনলোড, সিলেবাস এবং ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য প্রকাশিত হয় সমকাল ব্লগে।

    ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার প্রিলিমিনারি ও লিখিত পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। নিচে বিজ্ঞপ্তিটি দেয়া হয়েছে। ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২০২০ এর সময়সূচি দেখে নিন। আরও পড়ুন বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়োগ ২০২০

      ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন সার্কুলার ২০২০




      বৃহস্পতিবার ২৩ শে জানুয়ারি ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন সার্কুলার প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তি অনুসারে ২৩শে জানুয়ারি বেলা ৪টা থেকে এনটিআরসিএ'র নির্ধারিত ওযেবসাইটে ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন এর আবেদন করা যাচ্ছে। ০৬ই জানুয়ারি রাত ১২টা পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন আগ্রহী প্রার্থীগণ। আর ০৯ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদনের ফি জমা দেয়ার সুযোগ পাবেন প্রার্থীরা। ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধনের ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৫০ টাকা। এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে NTRCA ওয়েবসাইটে। আবেদনের নিয়ম এবং শর্তাবলী বিস্তারিত বর্ণনা করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিটিতে। এনটিআরসিএ অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ১৬ তম শিক্ষক নিবন্ধন বিজ্ঞপ্তি ডাউনলোড করে নিন।
      ১৭তম নিবন্ধন সার্কুলার ২০২০

      ১৭তম নিবন্ধন পরীক্ষার সার্কুলার ২০২০

      ১৭তম নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২০

      ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন ২০২০ অনলাইন আবেদন পদ্ধতি




      অনলাইনে সঠিকভাবে ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধনের আবেদন করার জন্য নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুন।
      • প্রথমে http://ntrca.teletalk.com.bd/home.php ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন
      • application form এ ক্লিক করুন
      • আপনার আবেদনের পদ নির্বাচন করুন
      • Candidates Information Form (CIF) পূরন করুন
      • আপনার ছবি এবং সিগনেচার আপলোড করুন
      • সবশেষে আপনার applicants copy সংরক্ষণ এবং প্রিন্ট করুন
      NTRCA অনলাইন আবেদন

      কিভাবে NTRCA নিবন্ধন পরীক্ষার ফী পরিশোধ করবেন?




      আবেদন ফরমটি পূরন করার পর অবশ্যই আপনাকে নির্ধারিত ৩৫০ টাকা পরীক্ষার ফী পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু কিভাবে এটি পরিশোধ করবেন?

      আপনাকে অবশ্যই টেলিটক প্রিপেইড সিম থেকে দুটি এসএমএস প্রেরণের মাধ্যমে পরীক্ষার ফী প্রদান করতে হবে। এজন্য সিমে পর্যাপ্ত টাকা রিচার্জ করে ফী প্রদান করার জন্য এসএমএস করুন!

      প্রথম এসএমএস ফরম্যাট
      NTRCA<Space>User ID (পাঠিয়ে দিন 16222 নম্বরে)
      প্রথম এসএমএস পাঠানোর পর ফিরতি এসএমএসে আপনাকে একটি PIN নম্বর দেয়া হবে।এই পিন নম্বর দিয়ে দ্বিতীয় এসএমএস পাঠাতে হবে।
      দ্বিতীয় এসএমএস ফরম্যাট
      NTRCA<Space>Yes<Space>PIN (পাঠিয়ে দিন 16222 নম্বরে)


      দ্বিতীয় এসএমএস পাঠানোর পরেই ফোনের ব্যালেন্স থেকে পরীক্ষার ফী কেটে নেয়া হবে এবং আপনার ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে একটি ফিরতি এসএমএস পাঠানো হবে।এসএমএসটি ভবিষ্যতের কাজের জন্য সংরক্ষণ করে রাখতে হবে।
      • অনলাইনে আবেদন করার বায়াত্তর ঘন্টার মধ্যেই ফী পরিশোধ করতে হবে।
      • পরীক্ষার ফী সঠিকভাবে প্রেরণ না করা পর্যন্ত আবেদন গ্রহনযোগ্য হবেনা।

      ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন রেজাল্ট ২০২০




      শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা শেষে প্রকাশিত হবে ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন রেজাল্ট।

      এনটিআরসিএ ওয়েব সাইটে (http://ntrca.teletalk.com.bd/result/ ) প্রিলিমিনারী, লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। এছাড়াও উত্তীর্ণ প্রার্থীদের এসএমএস করে ফলাফল জানানো হয়।

      প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের দ্বিতীয় ধাপে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের শেষ ধাপে মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। চূড়ান্ত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরে নিজের অবস্থান দেখুন ntrca এর জাতীয় মেধাতালিকায়

      ১৭ তম NTRCA শিক্ষক নিবন্ধন এর পরীক্ষা পদ্ধতি

      ১২তম নিবন্ধন পরীক্ষা থেকে প্রিলিমিনারি এবং লিখিত পরীক্ষা আলাদাভাবে নেয়া হচ্ছে। বিসিএসের আদলে প্রথমে ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাস করতে হয়। এরপর লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাওয়া যায়। আবার ১৩তম নিবন্ধন পরীক্ষা থেকে প্রিলিমিনারি, লিখিত পরীক্ষার পর আবার ভাইবা বা মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরই পাওয়া যাবে নিবন্ধনের চূড়ান্ত সনদপত্র।বেসরকারি এমপিওভুক্ত অথবা নন এমপিও স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় শিক্ষক পদে চাকুরী করতে হলে NTRCA প্রদত্ত এই নিবন্ধন সনদপত্র অর্জন করা বাধ্যতামূলক।

      বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়াতেও এসেছে ব্যাপক পরিবর্তন। পূর্বে এসব প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার চূড়ান্ত এক্তিয়ার ছিলো প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির হাতে। বর্তমানে ২০১৬ সাল থেকে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুপারিশের ক্ষমতা দেয়া হয়েছে এনটিআরসিএ 'র কাছে।





      নিবন্ধন পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে তৈরি  মেধাতালিকা অনুযায়ী নিয়োগের সুপারিশ করবে NTRCA। এজন্য নিবন্ধন পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর এখন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক হওয়ার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আরো পড়ুনঃ

      এজন্য বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক হতে চাইলে নিবন্ধন পরীক্ষায় ভালো নম্বর পাওয়ার জন্য পরিপূর্ণ প্রস্তুতির প্রয়োজন। আরো পড়ুন শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ।

      নিবন্ধন পরীক্ষায় আবেদনের যোগ্যতা

      অনেকেই নিজেদের শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ করে প্রশ্ন করেন তারা নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন কিনা। NTRCA তাদের  নিবন্ধনের সার্কুলারে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে কোন পদে নিবন্ধন পরীক্ষার আবেদনের জন্য কি যোগ্যতার প্রয়োজন। আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতার সাথে মিলিয়ে দেখে নিন আপনি কোন পদে নিবন্ধন পরীক্ষায় আবেদনের জন্য যোগ্য।

      দেখতে পাচ্ছেন সার্কুলারের ১৪ নং ধারা থেকে আবেদনের যোগ্যতার বিস্তারিত বিবরণ রয়েছে।পূর্ণাঙ্গ সার্কুলারটির ডাউনলোড লিংক দেয়া হয়েছে কাজেই বিজ্ঞপ্তিটি ডাউনলোড করে ভালো করে বুঝে নিন আপনি নিবন্ধন পরীক্ষায় আবেদনের জন্য যোগ্য কিনা।

      ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার সিলেবাস ২০২০




      ১৭ তম নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি এবং লিখিত পরীক্ষার সিলেবাস ডাউনলোড করুন। স্কুল পর্যায়ের ২৫ টি বিষয়ের ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার সিলেবাস একই। তবে লিখিত পরীক্ষার সিলেবাস ভিন্ন ভিন্ন। ১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষার স্কুল পর্যায়ের সিলেবাস ডাউনলোড করুন।
      ১৬ তম নিবন্ধন পরীক্ষার স্কুল পর্যায়ের সিলেবাস

      আবার ১৭ তম নিবন্ধনের স্কুল ২ পর্যায়ের ২৪ টি বিষয়ের ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার সিলেবাস একই কিন্তু লিখিত পরীক্ষার সিলেবাস আলাদা। ১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষার স্কুল ২ পর্যায়ের সিলেবাস ডাউনলোড করুন।
      ১৬ তম নিবন্ধনের স্কুল ২ সিলেবাস

      কলেজ পর্যায়ের নিবন্ধন পরীক্ষা হয় ৫১টি বিষয়ে। প্রতিটি বিষয়ের ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রশ্ন এবং সিলেবাস একই কিন্তু লিখিত পরীক্ষার প্রশ্ন এবং সিলেবাস ভিন্ন ভিন্ন। ১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষার কলেজ পর্যায়ের সিলেবাস ডাউনলোড করুন।
      ১৬ তম নিবন্ধন পরীক্ষার কলেজের সিলেবাস

      ১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষার মানবন্টন

      পরীক্ষার্থীদের নিশ্চয়ই জানা হয়ে গেছে যে নিবন্ধন পরীক্ষা তিনটি ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। প্রিলিমিনারি, লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষা।

      প্রিলিমিনারি পরীক্ষার মোট নম্বর ১০০। চারটি বিষয়ে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ গণিত এবং সাধারণ জ্ঞান। প্রতিটি বিষয়ে ২৫ টি করে প্রশ্ন থাকবে এবং প্রতিটি প্রশ্নের নম্বর ১। তবে প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য মোট নম্বর হতে ০.৫০ নম্বর কাটা হবে। পরীক্ষার সময় ১ ঘন্টা। প্রিলিমিনারি পরীক্ষার পাস নম্বর ৪০। 

      লিখিত পরীক্ষার প্রতিটি বিষয়ের নম্বর ১০০। প্রতিটি বিষয়ের লিখিত পরীক্ষার সময় তিন ঘন্টা।

      মৌখিক পরীক্ষার মোট নম্বর ২০। এর মধ্যে সনদপত্রের জন্য ১২ নম্বর এবং প্রশ্ন উত্তরের জন্য ৮ নম্বর। উভয় ক্ষেত্রেই ন্যুনতম ৪০% নম্বর না পেলে মেধাতালিকায় স্থান পাওয়া যাবেনা।

      নিবন্ধন পরীক্ষার সময়সূচি ও কেন্দ্রতালিকা

      প্রিলিমিনারি পরীক্ষার সময়সূচি

      স্কুল ও স্কুল ২ এর প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৫ই মে শুক্রবার সকাল ০৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত। কলেজ পর্যায়ের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে একই দিনে বিকেল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত।

      লিখিত পরীক্ষার সময়সূচি

      স্কুল ও স্কুল ২ এর লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ০৭ই আগস্ট সকাল ৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত এবং কলেজ পর্যায়ের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ০৮ই আগস্ট সকাল ০৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত।

      পরীক্ষার কেন্দ্র তালিকা ও অন্যান্য তথ্য
      নিবন্ধন পরীক্ষার কেন্দ্র তালিকা

      ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন ২০২০ প্রবেশপত্র ডাউনলোড




      ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন ২০২০ এর আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশিত হওয়ার পর পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের লিখিত পরীক্ষার জন্য পুনরায় প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে হবে।

      ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২০২০ এর লিখিত ও প্রিলিমিনারি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। পরীক্ষার পূর্বে প্রার্থীদের মোবাইল ফোনে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার স্থান ও সময় জানিয়ে দেবে কতৃপক্ষ। এরপরই ডাউনলোড করা যাবে প্রবেশপত্র।

      প্রবেশপত্র ডাউনলোড করুন


      January 23, 2020

      অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০ (বিশেষ) সংশোধিত হয়েছে, ডাউনলোড করুন

      জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন

      অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০ (বিশেষ) প্রকাশিত হয়েছে। অনার্স ৪র্থ বর্ষের রুটিন 2020 প্রকাশিত হয়েছে ১৪ই জানুয়ারি ২০২০ এবং তা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

      কিন্তু অনিবার্য কারণ বশত পরবর্তীতে অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষার সময়সূচি পরিবর্তন করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশোধিত অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০ প্রকাশিত হলো সমকাল ব্লগে। আরও পড়ুন ডিগ্রী ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন ২০২০

      যদিও পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২০২০ সালে তবুও এটি অনার্স ৪র্থ বর্ষের রুটিন ২০১৮। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ফাইনাল পরীক্ষার রুটিন ২০২০ প্রকাশিত হওয়ার পরই তা প্রকাশ করা হলো সমকাল ব্লগের পাঠকদের জন্য। আরও দেখুন অনার্স ২য় বর্ষের রেজাল্ট ২০২০ কাজেই যারা অনার্স ফাইনাল পরীক্ষার রুটিন 2018 খুঁজছেন তারা অনায়াসেই তা সংগ্রহ করতে পারেন সমকাল ব্লগ থেকে।
      


      অনার্স চতুর্থ বর্ষের রুটিন ২০২০ এর পরীক্ষা শুরু হবে ০২রা ফেব্রুয়ারি ২০২০। যারা এখনো রুটিন সংগ্রহ করেননি তারা সহজেই এখানে পাবেন অনার্স চতুর্থ বর্ষের রুটিন 2020। আরও পড়ুন মাস্টার্স ফাইনাল রেজাল্ট ২০২০

        অনার্স ৪র্থ বর্ষের রুটিন ২০২০ (বিশেষ) ডাউনলোড

        অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০ PDF এবং ছবি আকারে ডাউনলোড করতে পারেন সমকাল ব্লগ থেকে। অনার্স ৪র্থ বর্ষের রুটিন 2020 PDF জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট থেকে সরাসরি ডাউনলোড করতে ভিজিট করুন www.nu.ac.bd/recent-news-notice.php।



        এছাড়া ছবি আকারে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০ নিচে দেয়া হলো:

        ৪র্থ বর্ষ বিশেষ রুটিন
        অনার্স ৪র্থ বর্ষ বিশেষ রুটিন

        একনজরে অনার্স ৪র্থ বর্ষের রুটিন 2020





        • রুটিন প্রকাশ ১৪ই জানুয়ারি ২০২০
        • পরীক্ষা শুরু ০২রা ফেব্রুয়ারি ২০২০
        • পরীক্ষা শেষ ০৫ই মার্চ ২০২০
        • তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষে ব্যাবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষার জন্য নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগাযোগ করুন।

        সংশোধিত অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০

        ইতোমধ্যেই সকল পরীক্ষার্থী জেনে গেছেন যে অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষার সময়সূচি সংশোধিত হয়েছে। সংশোধিত সময়সূচি অনুযায়ী ০২/০২/২০ থেকে ০৫/০৩/২০ পর্যন্ত পরীক্ষাগুলো অনুষ্ঠিত হবে প্রতিদিন দুপুর ১টা থেকে। নিচে সংশোধিত পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ করা হলো।
        সংশোধিত রুটিন
        সংশোধিত পরীক্ষার রুটিন

        অনার্স ৪র্থ বর্ষের ভাইভা

        অনার্স ৪র্থ বর্ষের লিখিত পরীক্ষা শেষ হলে ভাইভা অনুষ্ঠিত হবে। লিখিত পরীক্ষা শেষে পরীক্ষার্থীরা অপেক্ষা করেন ভাইভা পরীক্ষার জন্য। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অনার্স ৪র্থ বর্ষের ভাইভা পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ করেনি এখনো। এ মর্মে নোটিশ জারি করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত সকল কলেজে মৌখিক পরীক্ষা সম্পন্ন করার নির্দেশ দেয়া হবে।

        অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০ সংক্রান্ত জরুরী বিজ্ঞপ্তি

        অনিবার্য কারণে ০১ তারিখের পরীক্ষা স্থগিত করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ। তবে পরীক্ষাটি পরবর্তীতে ০২ তারিখে হবে জানানো হয়েছে। ফলে ০১ তারিখে শুরু না হয়ে পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ০২ তারিখ থেকে। অন্যান্য পরীক্ষার সময়সূচি অপরিবর্তিত থাকবে। এ সংক্রান্ত নোটিশ নিচে দেয়া হলো।
        প্রেস রিলিজ
        বিজ্ঞপ্তি

        Wednesday, 22 January 2020

        January 22, 2020

        সমাজসেবা অধিদপ্তরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 প্রকাশিত

        সমাজসেবা অধিদপ্তরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

        সমাজসেবা অধিদপ্তরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020 প্রকাশিত হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সমাজসেবা অধিদপ্তরে বিভিন্ন পদে জনবল নিয়োগ করা হচ্ছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ সমাজসেবা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ এর শূন্যপদগুলোতে আবেদন করতে পারেন। আরও পড়ুন প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ সার্কুলার ২০২০ এবং এছাড়াও অন্যান্য গুরুুত্বপূর্ণ সরকারি চাকুরির সর্বশেষ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখার জন্য নিয়মিত পড়ুন সমকাল ব্লগ।
        



        এছাড়াও আবেদন করা প্রার্থীরা সমাজসেবা অধিদপ্তর নিয়োগ পরীক্ষা ২০২০, সমাজসেবা অধিদপ্তরে নিয়োগ পরীক্ষার সময়সূচী ২০২০ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে অধিদপ্তরের সরকারি ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

        সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০ এবং সমাজসেবা অধিদপ্তর নিয়োগ পরীক্ষা 2020 এর সর্বশেষ খবর পড়ুন। এছাড়াও পড়ুন বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০

        সমাজসেবা অধিদপ্তরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020




        Cash Transfer Modernization (CTM) শীর্ষক প্রকল্পে জনবল নিয়োগের জন্য পুনঃনিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। দুটি পদে দুজনকে নিয়োগ দেয়া হবে।

        পদের নাম: ফাইন্যান্সিয়াল ম্যানেজমেন্ট এসিস্টেন্ট

        শিক্ষাগত যোগ্যতা: ব্যাবসা প্রশাসন / ফিন্যান্স / একাউন্টিং এ স্নাতক ডিগ্রি

        পদের নাম: প্রকিউরমেন্ট এসিস্টেন্ট

        শিক্ষাগত যোগ্যতা: ব্যাবসা প্রশাসন / ফিন্যান্স / একাউন্টিং এ স্নাতক ডিগ্রি

        বেতন: ১০ম গ্রেড

        বয়স:  ১৮-৩০। বিশেষ ক্ষেত্রে ৩২

        পরীক্ষার ফী: ১৫০ টাকা

        প্রকল্পের মেয়াদ: জুন ২০২৩ পর্যন্ত

        আবেদনের শেষ তারিখ: ৩০শে জানুয়ারি ২০২০

        আবেদনের নিয়ম, অন্যান্য যোগ্যতা এবং আরো বিস্তারিত তথ্যের জন্য সমাজসেবা অধিদপ্তরের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি দেখুন
        সমাজসেবা অধিদপ্তরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২০
        সমাজসেবা অধিদপ্তরে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2020


        Monday, 20 January 2020

        January 20, 2020

        ফুলের ছবি, ১০০০+ ফুলের পিক ডাউনলোড করে নিন

        গোলাপ ফুলের ছবি

        ফুলের ছবি গোলাপ, ফুলের ছবি download

        ফুলের ছবি প্রয়োজন? ফুলের ছবি download করতে চান? এখানে পাবেন ১০০০+ সুন্দর গোলাপ ফুলের ছবি।অনেকেই ফেসবুকে ফুলের পিক আপলোড করতে চান। এজন্য ইন্টারনেট থেকে নিজের পছন্দের ফুলের ছবি ডাউনলোড করে নিতে হয়। আপনার জন্য এখানে রয়েছে অসংখ্য ফুলের ছবি গোলাপ

        প্রিয়জনকে ফেসবুক মেসেঞ্জার বা হোয়াটস অ্যাপে সুন্দর সুন্দর গোলাপ ফুলের ছবি hd উপহার দিতে চান? তাহলে এখান থেকেই আকর্ষণীয় সব গোলাপ ফুলের ছবি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।
        


        ফেসবুক প্রোফাইল পিকচারের জন্যও আমরা অনেকেই গোলাপ ফুলের ছবি চাই

        ফুলের ছবি ও নাম চাই ? এখানে বিশাল ভান্ডার থেকে ডাউনলোড করে নিন আপনার পছন্দের ফুলের ছবি

        এই অসম্ভব সুন্দর সুন্দর সব ফুলের পিক আপনার মন কাড়বেই। তবে ফুলের ছবিগুলো প্রফেশনাল গ্রাফিক ডিজাইনারের মাধ্যমে কাজ করা।এতে ছবিগুলো হয়েছে আরও আকর্ষণীয়।
        ফুলের ছবি

        ১০০০+ ফুলের পিক ডাউনলোড করুন 

        ফুলের ছবি, নাম ও পরিচিতি

        ফুলের ছবি ডাউনলোড করার পাশাপাশি এখানে পাবেন ফুলের ছবি ও নাম, ফুলের পরিচিতি।পৃথিবীতে কত যে সুন্দর সুন্দর ফুল রয়েছে তার সবগুলো কি আমরা চিনি?পৃথিবীর কথা বাদই দিলাম আমাদের বাংলাদেশেই যে সব ফুল জন্মে তার সবগুলোই কি আমাদের পরিচিত?দেখা যাবে বাস্তবে ঘুরে ফিরে কয়েকটি ফুলই আমরা চিনি মাত্র!বেশিরভাগ ফুলই আমাদের অপরিচিত।দেখলেও নাম বলতে পারবোনা।



        আসুন আমার মতো যারা ফুল ভালবাসেন আমরা বেশ কিছু ফুলের পরিচিতি জেনে নিই।ফুল পছন্দ করেননা এমন মানুষ নিশ্চয়ই কমই আছেন।তাহলে চলুন সচরাচর আমাদের চোখে পড়ে এমন কমন ফুল থেকেই আমাদের ফুলের পরিচয় পর্ব শুরু করা যাক!
        জাতীয় ফুল শাপলা
        শাপলা ফুল

        শাপলা

        শাপলা ফুল চেনেনা এমন কেউ বাংলাদেশে আছে বলে মনে হয়না। শাপলা আমাদের জাতীয় ফুল।ইংরেজি নাম Water lily।বাংলাদেশের খাল, বিল, হাওড়,নদী সর্বত্রই শাপলা ফুল চোখে পড়ে। এর সৌন্দর্য দেখে আমরা সবাই মুগ্ধ। সারা বিশ্বে শাপলা ফুলের প্রায় আশিটি জাত রয়েছে। এর মধ্যে সাদা শাপলা আমাদের জাতীয় ফুল হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে। এছাড়াও লাল শাপলা ফুলও বাংলাদেশের সর্বত্র কম বেশি চোখে পড়ে। শাপলা ফুলের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হলো এটি পানিতে জন্মে।জাতীয় ফুল হিসেবে বিশেষ মর্যাদার অধিকারী হওয়ায় শাপলা ফুল দিয়েই শুরু করা হলো আমাদের ফুলের পরিচিতি।
        গোলাপ ফুলের ছবি ডাউনলোড
        গোলাপ ফুল

        গোলাপ

        বাংলায় গোলাপ ইংরেজিতে Rose।পৃথিবীর সবচেয়ে সুপরিচিত এবং জনপ্রিয় ফুল সম্ভবত এই গোলাপ ফুল। ফুলের রাণী হিসেবে সবাই চেনে এই গোলাপকে। সৌন্দর্য এবং ভালবাসার প্রতীক হিসেবে সবাই স্বীকৃতি দিয়েছে গোলাপ ফুলকে। নানা বর্ণের প্রায় ১০০ প্রজাতির গোলাপ রয়েছে পৃথিবীজুড়ে।তবে লাল গোলাপ সবচেয়ে সহজলভ্য।
        পদ্ম ফুলের ছবি
        পদ্ম ফুল

        পদ্ম ফুল





        Lotus বা পদ্ম হলো শাপলার মতোই আরেকটি জলজ প্রজাতির ফুল। অনেকেই একে জলজ ফুলের রাণী বলে।এটি ভারতের জাতীয় ফুল।এছাড়া হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের কাছে পদ্ম একটি পবিত্র ফুল।পদ্ম ফুলের রং লাল, সাদা এবং গোলাপীর মিশ্রণ।বর্ষাকালে পদ্ম ফুল ফোটা শুরু হয় এবং শরৎকালে বেশি পরিমাণে দেখা যায়।বাংলাদেশের সর্বত্রই যেখানে সারাবছর পানি থাকে এরকম জলাশয়ে পদ্ম ফুল ফুটতে দেখা যায়।
        কদম ফুলের ছবি
        কদম ফুল

        কদম ফুল

        বাদল দিনের প্রথম কদম ফুল করেছ দান,
        আমি দিতে এসেছি শ্রাবণের গান।।
        কদম ফুলের মাহাত্ম্য রবীন্দ্রনাথের মতো আর কেউ মনে হয় উপলব্ধি করতে পারেনি।বনে বাদাড়ে অবহেলায় জন্ম নেয়া এই ফুলকে নিজের গানের মাঝে নিয়ে এসে প্রকৃতি ও ফুল প্রেমীদের যেন চোখ খুলে দিয়েছেন তিনি।আষাঢ়, শ্রাবণ মাস অর্থাৎ বর্ষাকাল কদম ফুল ফোটার আদর্শ সময়। কদম ফুল আমরা সবাই চিনি।ছোট বেলায় সবাই খেলেছি এই ফুল দিয়ে।বাংলাদেশের সব অঞ্চলেই দেখা মেলে কদম ফুলের।
        সূর্যমুখী ফুলের ছবি
        সূর্যমুখী ফুল

        সূর্যমুখী ফুল

        সূর্যমুখী(Sunflower) বাংলাদেশে খুবই পরিচিত একটি ফুল।সূর্যের দিকে মুখ করে থাকে বলেই এর এমন নাম।পূর্নবয়স্ক সূর্যমুখী ফুল আকারে অনেক বড় এবং দেখতে খুবই সুন্দর।শুধু ফুল হিসেবেই এটি পরিচিত নয়। সূর্যমুখী ফুলের উপকারিতা অনেক।সূর্যমুখী ফুলের বীজ ভোজ্যতেল হিসেবেও ব্যবহৃত হচ্ছে।ভোজ্যতেল হিসেবে চাহিদা থাকায় সূর্যমুখী ফুল চাষ লাভজনক।শোনা যায় ১৯৭৫ সাল থেকেই বাংলাদেশে সূর্যমুখী ফুল চাষ করা হচ্ছে।এর মধ্যে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে এটি ব্যাপকভাবে চাষ করা হচ্ছে।কোলেস্টেরলের মাত্রা কম থাকায় সূর্যমুখী তৈল স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।
        জবা ফুলের ছবি
        জবা ফুল

        জবা ফুল

        জবা ফুলের নাম শোনেননি বা দেখেননি,জবা ফুল চেনেন না এমন লোক কি বাংলাদেশে খুৃঁজে পাওয়া সম্ভব?জবা ফুলের বৈশিষ্ট্য খুবই সাধারণ।ফুলের রং সাধারণত লাল এবং গন্ধহীন।জবা ফুল দেখতে সুন্দর।বাংলাদেশের আনাচে কানাচে এমন কোনো অঞ্চল নেই যেখানে জবা ফুল ফোটেনা।সারা বছরই জবা ফুল ফুটতে দেখা যায় তবে গ্রীষ্মকাল এবং শরৎকালে এ ফুল বেশি দেখা যায়।বলা যায় যার একটি শখের ফুলের বাগান আছে তার বাগানে অবশ্যই অন্তত একটি জবা ফুলের গাছ আছে।
        ফুলের ছবি ফুলের পিক
        গাঁদা ফুল

        গাঁদা ফুল





        গাঁদা ফুল খুবই সুপরিচিত একটি ফুল।যে কোনো বাগানপ্রেমিদের বাগানের কমন ফুল হলো গাঁদা।এটি শীতকালীন ফুল হলেও গ্রীষ্ম এবং বর্ষাতেও ফোটে।নব্বুই এর দশক থেকে এটি বাংলাদেশে চাষ করা হয়।ঘরবাড়ি সাজানো, উৎসব, পূজা পার্বণে গাঁদা ফুল ব্যাপকভা‌বে ব্যবহৃত হয়।
        রজনীগন্ধা ফুলের ছবি
        রজনীগন্ধা ফুল

        রজনীগন্ধা ফুল

        রজনীগন্ধা ফুল ভালোবাসেননা এমন লোক মনে হয় খুঁজে পাওয়া যাবেনা।সাদা রঙের মনোমুগ্ধকর এ ফুল সর্বত্রই জনপ্রিয়।এর রয়েছে প্রাণমাতানো সুবাস।বিভিন্ন উৎসব,অনুষ্ঠানে রজনীগন্ধা ফুলের রয়েছে ব্যাপক কদর।প্রিয়জনকে একটি সুন্দর ফুলের তোড়া উপহার দিতে চান?রজনীগন্ধা ফুল ছাড়া সেই ফুলের তোড়া অসম্পূর্ণই মনে হবে।সারা দেশে এবং সারা বছরই এর চাহিদা থাকায় বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে রজনীগন্ধা ফুল।পাঠকদের জন্য দেয়া হলো সুন্দর একটি রজনীগন্ধা ফুলের ছবি।
        গন্ধরাজ ফুল
        গন্ধরাজ ফুল

        গন্ধরাজ ফুল


        বাংলাদেশ ও ভারতে গন্ধরাজ বেশ পরিচিত এবং জনপ্রিয় একটি ফুল। ফুল প্রেমীদের কাছে গন্ধরাজের বেশ কদর রয়েছে। তীব্র মন মাতানো সুগন্ধের জন্যই এ ফুলের এমন নাম। এ ফুল গ্রীষ্মকালে ফোটে এবং পুরো গ্রীষ্মকাল জুড়েই এ ফুলের ব্যাপ্তি। এটি চিরসবুজ এবং গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ। ফুলের আকার আকৃতি অনেকটা গোলাপের মতো হলেও ফুলের রং ধবধবে সাদা।

        Sunday, 19 January 2020

        January 19, 2020

        ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ, সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০ ডাউনলোড করুন

        এসএসসি রুটিন

        ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন, দাখিল রুটিন ২০২০ প্রকাশিত হয়েছে। সকল বোর্ডের এসএসসি রুটিন ২০২০ ডাউনলোড করুন। প্রিয় এসএসসি পরীক্ষার্থী বন্ধুরা আশা করি সবাই ভালো আছো। তোমরা নিশ্চয়ই ইতোমধ্যে জেনে গেছো প্রকাশ হয়েছে ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন। পরীক্ষা শুরু ১লা ফেব্রুয়ারি ২০২০ থেকে এবং শেষ হবে ২২শে ফেব্রুয়ারি ২০২০! আরো পড়ুন এইচএসসি রেজাল্ট ২০২০

        সবাই নিশ্চয়ই এসএসসি ২০২০ পরীক্ষার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত। চূড়ান্ত প্রস্তুতির জন্য সবাই পড়াশোনায় ব্যাস্ত সময় পার করছো। এবার বেশ আগেভাগেই প্রকাশিত হয়েছে এসএসসি রুটিন ২০২০। সবাই এস এস সি রুটিন ২০২০ হাতে পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছো।সকল বোর্ডের ssc পরীক্ষার রুটিন 2020 একই। ২০১৭ সাল  পর্যন্ত ভিন্ন ভিন্ন বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ভিন্ন ভিন্ন হতো। ২০১৮ সাল থেকে সকল বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন অভিন্ন হচ্ছে। ফলে সকল বোর্ডের জন্য একটিই রুটিন। ssc রুটিন ২০২০ প্রকাশিত হওয়ার সাথে সাথেই তা আমাদের সমকাল ব্লগে প্রকাশ করা হলো।

          ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন

          যারা অনলাইনে এসএসসি পরীক্ষা ২০২০ রুটিন ডাউনলোড করতে চাও তারা আমাদের ব্লগ থেকেই তা করতে পারো। এখানে একইসাথে দাখিল পরীক্ষার রুটিন ২০২০ ও প্রকাশ করা হলো।
          


          তোমরা জেনে আরো খুশি হবে যে আমরা সমকাল ব্লগে তোমাদের সুবিধার জন্য অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা প্রণীত এসএসসি সাজেশন ২০২০ প্রকাশ করতে যাচ্ছি। এছাড়াও তোমরা সবাই জানো রুটিন প্রকাশ হওয়ার পরও পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে বিভিন্ন কারণে পরীক্ষার পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচি অনেকসময় পরিবর্তন হয়ে যায়! সে ধরণের কিছু ঘটলেও আমরা তা যথাসময়ে জানিয়ে দেবো। কাজেই  2020 সালের ssc পরীক্ষার রুটিন এবং সাজেশন পেতে হলে নিয়মিত পড়তে হবে আমাদের সমকাল ব্লগ। আরো পড়ুন এসএসসি রেজাল্ট ২০২০

          এস এস সি রুটিন ২০২০ ডাউনলোড pdf

          যারা এসএসসি পরীক্ষার রুটিন পিডিএফ আকারে ডাউনলোড করতে চাও তারা এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারো। সরাসরি শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড লিংক দেয়া হলো ।

          এসএসসি রুটিন 2020 এতো আগে প্রকাশিত হলো কিভাবে?

          গত ১৯শে জুন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সাব কমিটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে এস এস সি পরীক্ষার রুটিন 2020 এর অনুমোদনের জন্য প্রস্তাব পেশ করে। মন্ত্রণালয় প্রস্তাব অনুমোদন করার পর ৩রা জুলাই বুধবার মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করে এবং শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসি পরীক্ষার রুটিন ২০২০ প্রকাশ করা হয়।



          এস এস সি রুটিন ২০২০ ছবি আকারে

          তত্ত্বীয় পরীক্ষার রুটিন
          ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন

          ব্যবহারিক পরীক্ষার রুটিন
          এসএসসি রুটিন ২০২০

          সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০

          ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের তারিখ ৩০/০১/২০২০ থেকে পিছিয়ে ০১/০২/২০২০ করার কারণে এসএসসি পরীক্ষার রুটিন পরিবর্তন করেছে শিক্ষা বোর্ড। নিচে সংশোধিত এসএসসি পরীক্ষার রুটিন ২০২০ দেয়া হলো।
          সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০
          সংশোধিত এসএসসি রুটিন ২০২০

          দাখিল রুটিন ২০২০ এবং ভোকেশনাল রুটিন ২০২০

          



          আমরা জানি এসএসসি পরীক্ষা দেশের মোট আটটি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত হয়। বোর্ডগুলো হলো : ঢাকা , রাজশাহী, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, দিনাজপুর এবং সিলেট।

          এসএসসি পরীক্ষার মতো মাদ্রাসার দাখিল এবং কারিগরির ভোকেশনালও সমমানের পরীক্ষা। দাখিল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে এবং ভোকেশনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে।

          ২০২০ সালের দাখিল পরীক্ষার রুটিন

          ২০২০ সালের ভোকেশনাল পরীক্ষার রুটিন

          ২০২০ সালের এসএসসি ভোকেশনাল ও দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষার রুটিন প্রকাশিত হয়েছে। নিম্নে তত্ত্বীয় ও ব্যাবহারিক পরীক্ষার রুটিন দেয়া হলো।
          দাখিল ভোকেশনাল রুটিন ২০২০
          এসএসসি ভোকেশনাল রুটিন ২০২০

          এসএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র

          এসএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র পরীক্ষার্থীদের নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে সংগ্রহ করতে হবে। ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র বিতরণ শুরু হবে ফরম ফিলাপ শেষে।পরীক্ষার্থীদের যত দ্রুত সম্ভব পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ করা উচিৎ। প্রবেশপত্রে কোনো ভুল ত্রুটি থাকলে তা সংশোধনের জন্য অল্প কয়েকদিন সময় দেয়া হয়। তবে ভুলত্রুটি থাকলেও এতে শিক্ষার্থীদের ঘাবড়ানোর প্রয়োজন নেই কারণ ভুল ত্রুটির জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকেই দায়ী করা হবে এবং ভুল ত্রুটি থাকলে তা সংশোধনের আবেদন করতে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকেই নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

          বিশেষ নির্দেশনাবলী

          1. পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট পূর্বে অবশ্যই পরীক্ষার্থীদেরকে পরীক্ষা কক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে।
          2. প্রশ্নপত্রে উল্লেখিত সময় অনুযায়ী পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে।
          3. প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে সৃজনশীল / রচনামূলক (তত্ত্বীয়)  পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এবং উভয় পরীক্ষার মধ্যে কোনো বিরতি থাকবে না।
          4. পরীক্ষার্থীগণ তাদের প্রবেশপত্র নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান প্রধানের নিকট হতে পরীক্ষা আরম্ভের কমপক্ষে তিন দিন পূর্বে সংগ্রহ করবে।
          5. ২০১৬-১৭, ২০১৭-১৮ শিক্ষা বর্ষের পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে শারিরীক শিক্ষা, স্বাস্থ্যবিজ্ঞান ও খেলাধুলা এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়সমূহ এনসিটিবি এর নির্দেশনা অনুসারে ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র ব্যাবহারিক পরীক্ষার নম্বরের সাথে ধারাবাহিক মূল্যায়নে প্রাপ্ত নম্বর বোর্ডের ওয়েবসাইটে অনলাইনে প্রেরণ করবে।
          6. পরীক্ষার্থীগণ তাদের নিজ নিজ উত্তরপত্রের OMR ফরমে তার পরীক্ষার রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, বিষয় কোড ইত্যাদি যথাযথভাবে লিখে বৃত্ত ভরাট করবে। কোনো অবস্থাতেই উত্তরপত্র ভাঁজ করা যাবেনা।
          7. প্রত্যেক পরীক্ষার্থী কেবলমাত্র নিবন্ধনপত্রে বর্ণিত বিষয়/ বিষয়সমূহের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। কোনো অবস্থাতেই ভিন্ন বিষয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না।
          8. কোনো পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা ( সৃজনশীল / রচনামূলক (তত্ত্বীয়) বহুনির্বাচনী ও ব্যাবহারিক)  নিজ বিদ্যালয় /প্রতিষ্ঠানে অনুষ্ঠিত হবেনা। পরীক্ষার্থী স্থানান্তরের মাধ্যমে আসন বিন্যাস করতে হবে।
          9. পরীক্ষার্থীগণ পরীক্ষায় সাধারণ, সায়েন্টিফিক ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে পারবে। কেন্দ্র সচিব ছাড়া কোনো ব্যাক্তি / পরীক্ষার্থী পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন আনতে এবং ব্যবহার করতে পারবে না।
          10. সৃজনশীল / রচনামূলক ( তত্তীয়) , বহুনির্বাচনী ও ব্যাবহারিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর উপস্থিতির জন্য একই উপস্থিতি পত্র ব্যবহার করতে হবে।
          11. ব্যাবহারিক পরীক্ষা স্ব স্ব কেন্দ্র /ভেন্যুতে অনু্ষ্ঠীত হবে।
          12. পরীক্ষার ফল প্রকাশের সাত দিনের মধ্যে পুনঃনীরিক্ষার জন্য অনলাইনে এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।


          এসএসসি প্রশ্ন ফাঁস

          বাংলাদেশে পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে যথেষ্ট হইচই হয়। এটি বর্তমানে বাংলাদেশে ব্যাপকভাবে আলোচিত একটি সমস্যা। তবে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মণি বলেছেন এর ৮০ ভাগই গুজব। তিনি এসব গুজব থেকে সচেতন থাকার জন্য শিক্ষার্থী,অভিভাবকদের অনুরোধ করেছেন। তবে এসবের মাঝে যে ২০ ভাগ সত্যতা রয়েছে সেটিও রোধ করার জন্য পদক্ষেপ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। প্রশ্ন পত্র ফাঁস রোধে ২৭শে জানুয়ারি থেকে ২৭শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো বিগত এসএসসি পরীক্ষার সময়।এছাড়া নির্দেশ রয়েছে কেন্দ্র সচিব ছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্রের কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না।এমনকি কেন্দ্র সচিবের ফোনটিও হতে হবে সাধারণ মানের অর্থাৎ যা দিয়ে শুধু কথা বলা যাবে। প্রশ্ন পত্র পাঠানো হবে এলুমিনিয়াম ফয়েল প্যাকে। পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার ৩০ মিনিট পূর্বে কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে।

          Friday, 17 January 2020

          January 17, 2020

          ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০১৯ ও ২০১৭ সালের পুরাতন সিলেবাসের রুটিন

          ডিগ্রী ১ম বর্ষ রুটিন

          ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন ২০১৯ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হওয়ার সাথে সাথেই তা প্রকাশ করা হয়েছে সমকাল ব্লগে।জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রি ১ম বর্ষের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থীরা অবগত আছেন যে ডিগ্রী ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ 2019 ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। প্রকাশিত হয়েছে ডিগ্রি ১ম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষার রুটিন ২০১৯। দেখুন অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০২০

          অতঃপর ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০১৯ প্রকাশিত হওয়ার পর সংশোধিতও হয়েছে। ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন ডাউনলোড করুন সমকাল ব্লগে থেকে।
          


          ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষা ২০১৯ শুরু হয় ২৪/১১/১৯ তারিখে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পরীক্ষার রুটিন সময়মতো হাতে পাওয়ার জন্য নিয়মিত পড়ুন সমকাল ব্লগ। ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন 2019 জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইটের নোটিশ বোর্ড (www.nu.ac.bd/recent-news-notice.php) থেকে সরাসরি ডাউনলোড করা যাবে। আরো দেখুন মাস্টার্স ফাইনাল রেজাল্ট ২০২০

            ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন ২০১৯ বিজ্ঞপ্তি

            পরীক্ষার্থী বন্ধুরা ইতোমধ্যেই জেনে গেছেন ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষা ২০১৯ এবং ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষা ২০১৭ (পুরাতন সিলেবাস) অনুষ্ঠিত হবে এক সাথে। ডিগ্রি ১ম বর্ষের ফরম ফিলাপ 2019 সম্পন্ন হয়েছে ইতোমধ্যেই। পরীক্ষার রুটিন হবে ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০১৯। এটি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার রুটিন ২০১৯। আরো পড়ুন ডিগ্রি ফাইনাল রেজাল্ট ২০২০

            জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেস বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা গেছে ২৪/১১/১৯ তারিখ থেকে ৩০/০১/২০ তারিখ পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে প্রতিদিন দুপুর ১:০০ থেকে।

            ডিগ্রি রুটিন ২
            ডিগ্রি রুটিন ১

            ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০১৯ ডাউনলোড





            ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন 2019 প্রকাশিত হওয়ার সাথে সাথেই পিডিএফ ডাউনলোড লিংক দেয়া হয়েছে। ফলে পরীক্ষার্থীগণ সহজেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট থেকে তা ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। সেই সাথে ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার রুটিন ছবি আকারেও এখানে প্রকাশিত হলো
            ডিগ্রি ১ম বর্ষ ১
            ডিগ্রি ১ম বর্ষ ২
            ২০১৭ সালের পুরাতন সিলেবাসের পরীক্ষার রুটিন
            ডিগ্রি ১ম বর্ষ ৩
            ডিগ্রি ১ম বর্ষ ৪
            ডিগ্রি ১ম বর্ষ ৫

            ডিগ্রি ১ম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষার রুটিন ২০১৯ সংশোধনের নোটিশ

            এদিকে ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার সময়সূচি আংশিক পরিবর্তন করে একটি নোটিশ জারি করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ।



            তবে এতে পরীক্ষা শুরুর তারিখের কোনো পরিবর্তন ঘটেনি।শুধু কয়েকটি পরীক্ষার সময়সূচি পরিবর্তন করা হয়েছে। নোটিশটি নিচে দেয়া হলো।
            ডিগ্রি বিজ্ঞপ্তি ১


            সংশোধিত ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০১৯




            পরীক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য সংশোধিত সর্বশেষ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষার রুটিন ২০১৯ সমকাল ব্লগে প্রকাশিত হলো।

            পরিবর্তিত রুটিন ১
            ২০১৭ সালের পুরাতন সিলেবাসের সংশোধিত রুটিন
            পরিবর্তিত রুটিন ২

            ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষা ২০১৯ এর নতুন নোটিশ

            এদিকে ডিগ্রি ১ম বর্ষের পরীক্ষার রুটিন সংক্রান্ত নতুন একটি নোটিশ প্রকাশ করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়।
            ডিগ্রি বিজ্ঞপ্তি ২