Breaking

Translate

Sunday, 11 November 2018

বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮ কি দুর্নীতি মুক্ত হবে?

NTRCA এর মাধ্যমে বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ পদ্ধতি কি সম্পূর্ণ স্বচ্ছ এবং দুর্নীতি মুক্ত হতে যাচ্ছে?




বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কতৃপক্ষ NTRCA এর মাধ্যমে সারা দেশের বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে। গত ১৩ই সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখের মধ্যেই সারাদেশের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শূন্য পদের তালিকা সংগ্রহের কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু পুনরায় আরেকটি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে শূন্য পদের চাহিদা দেয়ার সময়সীমা আরো দশদিন বৃদ্ধি করা হয়েছে। ফলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শূন্য পদের চাহিদা দেয়ার জন্য ২৩/০৯/১৮ তারিখ পর্যন্ত সময় পাচ্ছেন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ!

নিবন্ধনকারীগণ আশা করছেন যেহেতু আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ১ম থেকে এখন পর্যন্ত উত্তীর্ণ সকল নিবন্ধনকারীদের নিয়ে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে একটি বিষয়ভিত্তিক সমন্বিত মেধাতালিকা তৈরি করা হয়েছে এবং তা NTRCA এর ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে কাজেই এবার স্বচ্ছভাবেই নিয়োগ হতে চলেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে।



জানা গেছে শূন্য পদের চাহিদা (e-Requisition) সংগ্রহের পরপরই বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০১৮ প্রকাশ করবে এনটিআরসিএ। এরপরই চাকুরীর জন্য বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ আবেদন করতে হবে নিবন্ধনকারী চাকুরী প্রার্থীদের। আবেদনের পর বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ তালিকা তথা মেধাতালিকা অনুযায়ী নির্বাচিত যোগ্য প্রার্থীকে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করবে NTRCA।

সবকিছু ঠিক থাকলে নিয়োগ স্বচ্ছ এবং দুর্নীতিমুক্ত ভাবেই হওয়ার কথা। কিন্ত সত্যিই কি বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮ সম্পূর্ণ দুর্নীতিমুক্ত হতে যাচ্ছে?এই প্রক্রিয়ার মাঝে কি সত্যিই কোনো দুর্নীতির সুযোগ বা ফাঁকফোকর নেই?

কথা হলো একজন নিবন্ধনকারীর সাথে। তিনি ১০ম নিবন্ধনে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিষয়ে স্কুল ও কলেজের নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। চাকুরী করেন সরকারি BADC অফিসে তৃতীয় শ্রেণীর একটি পদে। জানালেন অনেক চেষ্টা করেছিলেন নিজ এলাকার বেসরকারি স্কুল অথবা কলেজে চাকরি পাওয়ার জন্য। এজন্য কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঘুষও দিয়েছেন কিন্তু চাকরি হয়নি। অবশেষে ঘুষ ছাড়াই পরীক্ষায় পাশ করে BADC অফিসে তৃতীয় শ্রেণীর পদে চাকুরী হয়েছে।

এখন যেহেতু বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ তালিকা তথা মেধাতালিকার ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া হবে এবং সকল নিবন্ধনকারীই বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ আবেদন করার সুযোগ পাবে তাই কলেজের লেকচারার পদে চাকুরীর জন্য আবেদন করবেন তিনি। তাঁর খুব ইচ্ছে নিজ এলাকার কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করবেন। এতে সুন্দরভাবে পরিবারের দেখাশোনা করতে পারবেন এবং পারিবারিক জমিজমারও দেখাশোনা করতে পারবেন।

কথা প্রসঙ্গে এই নিবন্ধনকারী জানালেন ইতোমধ্যেই একটি লোভনীয় প্রস্তাব পেয়েছেন তিনি। একজন NTRCA কর্মচারী প্রস্তাব করেছেন ৪০০০০০( চার লক্ষ ) টাকায় চাকুরীর নিশ্চয়তা দেবেন! মেধাতালিকায় অবস্থান যাই হোক না কেন চার লক্ষ টাকা দিলেই নিশ্চিত চাকুরী পাইয়ে দেবেন। তবে এজন্য ৫০০০০ ( পঞ্চাশ হাজার)  টাকা অগ্রিম দিতে হবে এবং বাকি টাকা নিয়োগ প্রাপ্তির সাতদিনের মধ্যেই পরিশোধ করতে হবে।

কিভাবে যোগাযোগ হলো সেই NTRCA কর্মচারীর সঙ্গে? জিজ্ঞেস করায় উক্ত নিবন্ধনকারি জানালেন তাঁর একজন চাচাতো ভাই আছেন যিনি ঢাকায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে চাকুরি করেন।এনটিআরসিএর একজন কর্মচারির সাথে তাঁর যোগাযোগ আছে।তাঁর মাধ্যমেই প্রস্তাব পেয়েছেন। সরাস‌রি সেই কর্মচারীর ফোন নম্বর দেয়নি তবে সেই ভাইয়ের মাধ্যমে ফোনে তাঁর সাথে কথা হয়েছে।



সেই নিবন্ধনকারী আরো জানালেন চাকুরীর নিশ্চয়তা দিলেও নিজ এলাকায় চাকুরীর নিশ্চয়তা দেয়নি সেই কর্মচারি!চাকুরী কোথায় দিতে পারবে তা সময়মতো জানিয়ে দেবে এবং সেখানেই আবেদন করতে হবে। তবে পরবর্তীতে ট্রান্সফারের ব্যাবস্থা করে দিতে পারবে!

প্রস্তাবটি গ্রহণ করেছেন কিনা জিজ্ঞেস করায় বললেন এখনো রাজি হননি। গ্রহণ না করার সম্ভাবনাই বেশি। কারণ সেই ব্যাক্তি NTRCA অফিসে চাকরি করলেও সম্ভবত বড় কোনো কর্মকর্তা নন। তবে কোনো কর্মকর্তার সাথে যোগসাজশে হয়তো এসব করছেন। সেক্ষেত্রে কোনো কারণে চাকুরী না হলে টাকা ফেরত পেতে ঝামেলা হতে পারে এই আশংকায় তিনি এখনো রাজি হননি।

যদিও সেই নিবন্ধনকারীর দেয়া তথ্যের সত্যতা যাচাই করে দেখা সম্ভব হয়নি তবে সত্যিই যদি বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ এরকম সিন্ডিকেটের কারণে কলুষিত হয় তাহলে তা নিবন্ধনকারীদের জন্য যথেষ্ট উদ্বেগজনক। ইতোপূর্বেও NTRCA থেকে নিবন্ধনের জালসনদ এবং টাকার বিনিময়ে নিবন্ধন সার্টিফিকেট বিক্রি নিয়ে অনেক সমালোচনা আছে। এমনকি আদালত তার Observation এ বলেছে গত ২০১৬ সালের নিয়োগ সম্পূর্ণ স্বচ্ছভাবে হয়নি বরং Pick and choose পদ্ধতিতে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এজন্যই রায়ে একটি দৃশ্যমান সমন্বিত মেধাতালিকা তৈরির কথা বলা হয়। যাতে আগামী নিয়োগ দুর্নীতি মুক্ত এবং স্বচ্ছ হয়।

নিবন্ধনকারী কারও গোচরে যদি এধরনের সিন্ডিকেটের খবর থাকে তাহলে সম্ভব হলে সে ব্যাপারে NTRCA কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা উচিত। তাতে হয়তো যথাযথ ব্যাবস্থা গ্রহণ করতে পারে এনটিআরসিএ কতৃপক্ষ!

আবার কোনো প্রতারক চক্র NTRCA এর নাম ব্যবহার করে প্রতারণাও করতে পারে এই সুযোগে! সেক্ষেত্রে নিবন্ধনকারীদের সতর্ক থাকতে হবে যাতে লোভের ফাঁদে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হতে না হয়।



নিবন্ধনকারীরা নিজ নিজ এলাকায় যদি এরকম কোনো ঘটনা শুনে থাকেন তাহলে এখানে কমেন্ট করে আপনার অভিজ্ঞতা জানাতে পারেন। সর্বোপরি দুর্নীতি মুক্ত স্বচ্ছ নিয়োগ হোক এবং মেধাবী নিবন্ধনকারীরা শিক্ষকতার সুযোগ পাক এই কামনা আমাদের সকলের। বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য সবার আগে জানতে চান? নিয়মিত পড়ুন আমাদের সমকাল ব্লগ

আরো পড়ুন :


লেখাটি প্রকাশ করার বিষয়ে সেই নিবন্ধনকারীর অনুমতি নেয়া সম্ভব হয়নি বিধায় তাঁর নাম, ঠিকানা প্রকাশ করা হলোনা।

NTRCA Update news

No comments:

Post a Comment